রবিবার, আগস্ট ২৫

দোস্তি বন্ধ, ট্রেনের পর দু’দেশের মধ্যে বাসও চলতে দেবে না পাকিস্তান

দ্য ওয়াল ব্যুরো : জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা রদ করেছে ভারত। তার প্রতিবাদে পাকিস্তান আগেই দু’টি আন্তর্দেশীয় ট্রেন বাতিল করে দিয়েছিল। তারপরে বন্ধ করল বাসও। বাসের নাম ‘দোস্তি’। দিল্লি থেকে সেই বাস যেত লাহোরে। পাকিস্তানের যোগাযোগ ও ডাক মন্ত্রী মুরাদ সৈদ জানিয়েছেন, বুধবার জাতীয় সুরক্ষা কমিটির বৈঠকের পরে তাঁরা ওই বাস সার্ভিস বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

১৯৯৯ সালে ওই বাস পরিষেবা শুরু হয়। ২০০১ সালে ভারতের সংসদ ভবনে জঙ্গি হামলার পরে বন্ধ করে দেওয়া হয়। ফের চালু হয় ২০০৩ সাল থেকে। বাসটি ছাড়ত দিল্লি গেটের কাছে আম্বেদকর স্টেডিয়াম টার্মিনাল থেকে। ভারতে সেই বাস চালাত ডিটিসি। প্রতি সোম, বুধ ও শুক্রবার দিল্লি থেকে বাস ছাড়ত। অন্যদিকে পাকিস্তানে সেই বাস চালাত পিটিডিসি। সেই বাসটি লাহোর থেকে ছাড়ত প্রতি মঙ্গল, বৃহস্পতি ও শনিবার।

গত শুক্রবার পাকিস্তানের রেলমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমেদ ঘোষণা করেন, থর এক্সপ্রেস বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে। সেই ট্রেনটি যাতায়াত করত রাজস্থান সীমান্ত দিয়ে। রশিদ ঘোষণা করেন, থর এক্সপ্রেস শেষবারের মতো ছাড়বে শুক্রবার রাতে। তার আগে বৃহস্পতিবারই বন্ধ করে দেওয়া হয় সমঝোতা এক্সপ্রেস।

থর এক্সপ্রেস যোধপুরে ভগৎ কি কোঠি স্টেশন থেকে যাত্রা করত প্রতি শুক্রবার রাতে। বহু আগে ট্রেনটি চালু হয়েছিল। মাঝে ৪১ বছর বন্ধ ছিল তার চলাচল। ২০০৬ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি থেকে থর এক্সপ্রেস নতুন করে চলতে থাকে।

রশিদ জানান, কিছুদিন আগে থর এক্সপ্রেসের জন্য ১৩৩ কিলোমিটার নতুন লাইন পাতা হয়েছে। খরচ হয়েছে ১৩০০ কোটি টাকা। সেই লাইন এখন থর কোল প্রজেক্টের কাজে লাগবে।

সমঝোতা এক্সপ্রেস চালু করার কথা প্রথমে বলা হয়েছিল ১৯৭১ সালের সিমলা চুক্তিতে। ১৯৭৬ সালে ওই ট্রেন চালু হয়। তাতে ছিল ছ’টি স্লিপার কোচ ও একটি এসি থ্রি টিয়ার কোচ। পাকিস্তানের দিকে ট্রেনটি লাহোর থেকে আসে ওয়াঘা পর্যন্ত। ভারতের দিলে ট্রেনটি আটারি থেকে দিল্লি পর্যন্ত আসে।

Comments are closed.