বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৭

জাতীয় নাগরিকপঞ্জি থেকে বাদ গেল আরও ১ লক্ষ মানুষের নাম

দ্য ওয়াল ব্যুরো : অসমে খসড়া জাতীয় নাগরিকপঞ্জি থেকে বাদ গেলেন আরও এক লক্ষের বেশি মানুষ। তাঁদের নামের তালিকা প্রকাশিত হয়েছে বুধবার। রাজ্যে এনআরসি কো-অর্ডিনেটরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ২০০৩ সালের নাগরিকত্ব আইন অনুযায়ী নাগরিকপঞ্জি থেকে বাদ পড়া ১,০২, ৪৬২ জনের নামের তালিকা প্রকাশিত হল। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী জাতীয় নাগরিকপঞ্জির পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশিত হবে চলতি বছরের ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে।

গতবছর জুলাই মাসে অসমে প্রথম খসড়া জাতীয় নাগরিকপঞ্জি প্রকাশিত হয়। ১৯৫১ সালের পর এই প্রথমবার নাগরিকপঞ্জি সংশোধিত হল। বুধবার যে এক লক্ষের বেশি মানুষের নামের তালিকা প্রকাশিত হয়েছে, তাঁরা তখন নাগরিকপঞ্জিতে স্থান পেয়েছিলেন। কিন্তু এক বছরের মাথায় বাদ পড়েছেন। যাঁদের নাম বাদ পড়েছে, তাঁদের প্রত্যেককে আলাদা করে চিঠি দিয়ে জানানো হবে। তাঁদের বাড়ির ঠিকানায় যাবে চিঠি। যাঁরা বাদ পড়েছেন, তাঁরা এনআরসি হেল্প সেন্টারে ১১ জুলাইয়ের মধ্যে আবেদন করতে পারবেন।

কেন এক লক্ষের বেশি মানুষের নাম বাদ পড়ল ব্যাখ্যা করে এনআরসি অফিসের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, কয়েকটি বিষয় বিবেচনা করে অনেককে জাতীয় নাগরিকপঞ্জি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। যাঁরা ইতিমধ্যে বিদেশী বলে চিহ্নিত হয়েছেন। যাঁরা আদৌ ভোটার বলে গণ্য হতে পারেন কিনা, তা নিয়ে সন্দেহ আছে। যে ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ফরেনার্স ট্রাইব্যুনালে মামলা আছে।

গতবছর ৩০ জুলাই যে খসড়া নাগরিকপঞ্জি প্রকাশিত হয়, তাতে ৪০ লক্ষ ৭ হাজার ৭০৭ জন বাদ পড়েন। তাঁদের মধ্যে ৩৬ লক্ষের বেশি মানুষ বাদ পড়ার বিরুদ্ধে আবেদন করেছেন।

অসমে যে বিদেশী নাগরিকরা বেআইনিভাবে বসবাস করছেন, তাঁদের চিহ্নিত করে নিজের দেশে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্যই এন আর সি করা হয়েছে। বিদেশী চিহ্নিতকরণের কাজটির ওপরে নজর রাখছে সুপ্রিম কোর্ট।

Comments are closed.