মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৬

সমকামী সম্পর্কের জের, দিল্লিতে পুড়িয়ে খুন আপ নেতাকে

দ্য ওয়াল ব্যুরো : গত ৫ অক্টোবর রাত তিনটের সময় দিল্লির লোনি ভোপরা রোডে একটি পুড়ে যাওয়া এসইউভি গাড়ি দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে সন্দেহ হয় পুলিশের। গাড়ির ভিতরে পাওয়া যায় নবীন দাস নামে এক আপ নেতার দেহ। তার বয়স ছিল ৪৪। তাঁর পরিবারের লোকজন গাজিয়াবাদ থানার সাহিবাবাদ থানায় খুনের অভিযোগ করে। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, সমকামী সম্পর্কের জেরে পুড়িয়ে খুন করা হয়েছে আপ নেতাকে।

বুধবার পুলিশ জানায়, মূল অভিযুক্ত তায়েব কুরেশি, তার ভাই তালিব কুরেশি ও তাদের বন্ধু সমর খানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা তিনজনেই খুনের ষড়যন্ত্রে যুক্ত ছিল। তায়েবের সঙ্গে সমকামী সম্পর্ক ছিল নবীনের। সে তায়েবকে ভয় দেখাত, একটি আপত্তিকর ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেবে। ওইভাবে সে তায়েবকে তার সঙ্গে একটি ভাড়া করা ফ্ল্যাটে থাকতে বাধ্য করত।

নবীনের হাত থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য তায়েব তাকে খুনের ষড়যন্ত্র করে। তালিব ও সমর তাকে সাহায্য করেছিল।

তায়েবরা গভীর রাতে লোনি অঞ্চলে নবীনকে ডেকে আনে। তাকে ঘুমের ওষুধ মেশানো হালুয়া খেতে দেয়। তা খেয়ে নবীন যখন প্রায় অজ্ঞান হয়ে গিয়েছে, তখন তার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ও এটিএম কার্ড ব্যবহার করে তায়েব সাত লক্ষ ৮৫ হাজার টাকা তুলে নেয়। তারপর স্থানীয় এক দোকান থেকে দুলিটার পেট্রল কিনে গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। সমীর তখন অজ্ঞান অবস্থায় গাড়ির ভিতরে ছিল।  সেও পুড়ে মারা যায়।

সাহিবাবাদ থানার পুলিশ অফিসার দীনেশ যাদব বলেছেন, আমরা দেখেছি, গাড়িতে নবীনের দেহটি রয়েছে ড্রাইভারের সিটে। তার উল্টোদিকের দরজা খোলা। আমাদের সন্দেহ হয়, গাড়িতে নবীন বাদে আরও কেউ ছিল।

তায়েবরা নবীনের স্মার্টফোন ও অন্যান্য কয়েকটি নথিপত্র নিয়ে পালায়। তারা চেয়েছিল স্মার্টফোন থেকে আপত্তিকর ভিডিওটি মুছে দেবে। পুলিশ তায়েবের থেকে ৪ লক্ষ ৮৫ হাজার টাকা উদ্ধার করেছে। বাকি টাকা রয়েছে তার বাবার কাছে। সে এখনও পলাতক।

Shares

Comments are closed.