বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৭

প্রৌঢ়াকে গুলি চালিয়ে বসল পোষা কুকুর! অদ্ভুত এ ঘটনা যেন বিশ্বাস করাই কঠিন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অবিশ্বাস্য লাগলেও, এটাই ঘটেছে বাস্তবে। এক মহিলাকে গুলি করে জখম করার অভিযোগ উঠেছে একটি কুকুরের বিরুদ্ধে! শুধু তা-ই নয়, পুলিশি তদন্তেও প্রমাণ মিলেছে, কুকুরটিই গুলি চালিয়েছে, এবং সেই গুলিতেই আহত হয়েছেন প্রৌঢ়া টিনা স্প্রিংগার। আমেরিকায় ওকলাহোমার এই ঘটনার কথা শুনে হতবাক সারা দুনিয়া।

পুলিশ জানিয়েছে, ৭৯ বছরের বৃদ্ধ ব্রেন্ট পার্কস তাদের ফোন করে জানান, গুলিতে জখম হয়েছেন টিনা। সেই গুলি চালিয়েছে তাদের পোষা কুকুর মলি। স্বাভাবিক ভাবেই প্রথমে বৃদ্ধের কথা বিশ্বাস হয়নি পুলিশের। তারা ভেবেছিল,  নিজেই প্রৌঢ়াকে গুলি করে কুকুরের নামে চাপিয়ে দিচ্ছেন ওই বৃদ্ধ। কিন্তু ঘটনাস্থলে যেতেই ভুল ভাঙে পুলিশের।

পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেখতে পায়, গাড়ির সেন্টার কনসোলের মধ্যে পড়ে রয়েছে গুলির খোল। পাশাপাশি গুলি চলায় পুড়ে গিয়েছে সেন্টার কনসোলের কিছুটা অংশও। কিন্তু গুলিটা যে কুকুরের মাধ্যমেই চলেছে, সেটা তখনও বিশ্বাস হয়নি পুলিশের।

বৃদ্ধ ব্রেন্ট জানান, টিনা গাড়ি চালাচ্ছিলেন। পাশের সিটেই বসে ছিলেন ব্রেন্ট পার্কস। তাঁদের সঙ্গে ওই গাড়িতেই উপস্থিত ছিল পোষা ল্যাব্রাডর কুকুর মলি। আচমকা গাড়ির সামনে ট্রেন আসতে দেখে খুব জোরে গাড়ির ব্রেক কষেন টিনা। এর পরেই তাঁর পায়ে মারাত্মক যন্ত্রণা হয়। তাকিয়ে দেখতে পান, পা দিয়ে অঝোরে রক্ত পড়ছে। পা ফুঁড়ে ঢুকে গিয়েছে গুলি!

সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করা হয় টিনাকে। এর পরে পুলিশ খতিয়ে তদন্ত শুরু করলে জানা যায় আসল তথ্য। ব্রেন্ট জানান, সামনে থেকে ট্রেন যেতে দেখে সেন্ট্রাল কনসোলের মধ্যে ঝাঁপিয়ে পড়ে ল্যাব্রাডর মলি। সেখানেই ২২ক্যালিবারের হ্যান্ডগান রাখা ছিল। মলির শরীরের চাপে ট্রিগারে চাপ পড়তেই ছিটকে বেরিয়ে আসে গুলি। সেখান থেকেই এত বড় বিপত্তি।

ব্রেন্ট এবং টিনা দু’জনেই এমনটাই জানিয়েছে পুলিশকে। পুলিশের তদন্তেও মিলে গেছে এই ঘটনা। ফলে এর পিছনে কোনও সন্দেহের অবকাশ খুঁজে পায়নি পুলিশ। কিন্তু ব্রেন্টের সেই একই কথা, তাদের কুকুর মলিই গুলি করে মারতে চেয়েছিল টিনাকে।

Comments are closed.