বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ১৭

চুরি হওয়া সাত মাসের সন্তানকে দুই মাস পর ফিরে পেলেন ফুটপাথবাসী মা-বাবা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ফুটপাথ থেকে শিশু চুরি যাওয়া নতুন নয়। তবে, সেই শিশুকে ফিরে পাওয়ার ঘটনা বিরল। যা ঘটেছে দিল্লিতে। চুরি যাওয়ার ২ মাস পর নিজের নয় মাসের সন্তানকে খুঁজে পেলেন ফুটপাথবাসী এক দম্পতি।  দিল্লি থেকে অনেক দূর একেবারে ভিন্ রাজ্যে তাদের শিশুকে পাচার করা হয়েছিল। সেখান থেকেই কোলের সন্তানকে ফিরিয়ে আনলেন তাঁরা। ফুটপাথবাসীদের শিশু চুরি অভিযোগ খতিয়ে দেখেই তৎপর হয় দিল্লি পুলিশও।

দিল্লির বাংলা সাহেব গুরুদ্বারের সামনে ফুটপাথে অনেকদিন ধরেই সংসার পেতেছেন এই দম্পতি। নভেম্বরে তাঁদের শিশু চুরি যায়। তখন শিশুটির বয়স সাত মাস। তাঁদের মাঝেই শুয়েছিল শিশুটি। অভিযোগ, মাঝরাতে তাকে চুরি করা হয়। অভিযোগ পেয়ে তদন্তে নামে দিল্লি পুলিশ। কয়েকদিন আগে পুলিশের কাছে খবর আসে, দিল্লি থেকে  ফুটপাথেরই এক শিশুকে পাঞ্জাবে পাচার করা হয়েছে। জানা যায় সেই শিশুই ওই দম্পতির।

মাঙ্কি ফিভারে আক্রান্ত হয়ে পাঁচ জনের মৃত্যু কর্নাটকে

দিল্লি থেকে শিশুটিকে পাঞ্জাবের ফিরোজপুরে পাচার করে এক মহিলা। তারপরেই শিশুর মা জানান, নভেম্বরেই এক সন্তানহীন তরুণী তাঁদের কাছে শিশু চাইতে আসে। পরিবর্তে দম্পতিকে টাকা দিতে চায়। সেই প্রস্তাবে দম্পতি রাজি না হওয়ায় তাঁদের মধ্যে বচসাও হয়। খোঁজ চালানোর পুলিশ জানতে পারে, তরুণীর বয়স উনিশ। দিল্লির পালিকা বাজারে একটি ভাড়া বাড়িতে থাকে। মহিলাকে আটক করে জেরা করতেই সে শিশু চুরির কথা স্বীকার করে। জানায়, পাচার করতেই শিশু চুরি করেছিল সে। ফিরোজপুরে একজনের  কাছে শিশুটিকে বিক্রি করা হয়।

জেরার পরই মহিলাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ফিরোজপুরের লোকটিকেও পঞ্জাব পুলিশের সাহায্যে গ্রেফতার করা হয়। পাশাপাশি, আর কোনও ফুটপাথের শিশুকে এই মহিলা পাচার করেছে কিনা তা খতিয়ে দেখছে দিল্লি পুলিশ।  হারিয়ে যাওয়া সাত মাসের শিশুটি এখন নয় মাসের। শিশুকে নিয়ে এবার ফুটপাথ ছাড়তে চাইছেন এই দম্পতি। ফুটপাথবাসীদের নিরাপত্তায় বাড়তি পুলিশ নিয়োগের সিদ্ধান্তও নিচ্ছে দিল্লি পুলিশ।

ভিন্ন মত রাখা মানে অন্য মতকে অসম্মান করা নয়: নাসিরুদ্দিন প্রসঙ্গে আশুতোষ রানা

 

 

Shares

Comments are closed.