রবিবার, আগস্ট ২৫

কেরলে বৃষ্টিতে ধস নেমে আটকে ৪০, মৃত ৩

দ্য ওয়াল ব্যুরো : গত কয়েকদিনের প্রবল বৃষ্টিতে ধস নেমেছে কেরলের মালাপ্পুরম জেলায়। তাতে ৪০ জন আটকে আছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। আগেই ধসপ্রবণ এলাকার বাসিন্দাদের কাছে আবেদন জানানো হয়েছিল, বাড়ি ছেড়ে চলে আসুন। মাত্র ১৭ টি পরিবার তাদের এলাকা ছেড়ে ত্রাণশিবিরে আশ্রয় নিয়েছে। ধস নামার পরে ঘটনাস্থলে গিয়েছে এনডিআরএফ ও কেরল পুলিশের দু’টি টিম। তারা আটকে পড়া মাত্র দু’জনকে উদ্ধার করতে পেরেছে। প্রতিকূল আবহাওয়ায় উদ্ধারের কাজে ব্যাঘাত ঘটছে। এলাকার রাস্তাঘাট ভেঙে যাওয়ায় ত্রাণের জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতিও আনা যাচ্ছে না।

কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন জানিয়েছেন, রাজ্যে বন্যায় মারা গিয়েছেন ২৮ জন। সাতজন গুরুতর আহত হয়েছে, নিখোঁজ ২৭ জন। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে ৭৩৮ টি ক্যাম্পে ৬৪ হাজার ১৩ জন বন্যার্তকে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। আগামী শনিবার ভারী বৃষ্টিপাতের শঙ্কায় রাজ্যের কয়েকটি জেলায় লাল সতর্কতা জারি করা হয়েছে। তার মধ্যে আছে এর্নাকুলাম, ইদুক্কি, পালাক্কাড়, মালাপ্পুরম, কোঝিকোড়, ওয়ানাড় এবং কান্নুর। আরও পাঁচটি জেলার জন্য কমলা সতর্কতা জারি হয়েছে। তাদের মধ্যে আছে আলাপ্পুঝা, কোট্টায়াম, ত্রিচুর ও কাসারগড়।

বৃহস্পতিবার সকালে ওয়ানাড়ে এক চা বাগানের কাছে ধস নেমে একটি জনবসতি এলাকা ধ্বংস হয়ে যায়। সেখানে মূলত চা বাগানের শ্রমিকরা বাস করতেন। কয়েকজন ধসে আটকে পড়েন। আহত হন ২০০ জন। আটকে পড়া লোকজনকে উদ্ধার করতে যায় সেনাবাহিনী, এনডিআরএফ ও স্থানীয় দমকল বাহিনী।

ওয়ানাড়ের এমপি তথা কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী জানিয়েছেন, আমার কেন্দ্রের মানুষ বন্যার বিরুদ্ধে লড়াই করছেন। আমি তাঁদের জন্য প্রার্থনা করি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তাঁকে আশ্বাস দিয়েছেন, সব রকম সাহায্য করা হবে।

Comments are closed.