সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৩

ছাত্রীর অস্বাভাবিক মৃত্যু, মিলল রক্ত দিয়ে লেখা প্রেমপত্র

দ্য ওয়াল ব্যুরো, জলপাইগুড়ি : নিজের ঘরের দরজা বন্ধ করে গলায় ওড়নার ফাঁস লাগিয়ে দিয়েছিল দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী। গোঙানির আওয়াজ শুনতে পেয়ে ছুটে গিয়েছিলেন বাড়ির লোকজন। কোনও মতে তাঁকে নামিয়ে এনে পৌঁছে গিয়েছিলেন  জলপাইগুড়ি হাসপাতালে। কিন্তু ততক্ষণে দেরি হয়ে গিয়েছে। ডাক্তাররা মৃত বলে ঘোষণা করেন ওই তরুণীকে। সম্পর্কের টানাপড়েনের জেরেই তিনি আত্মঘাতী হয়েছেন বলে বাড়ির লোকের অভিযোগ।

জলপাইগুড়ির কচুয়া বোয়ালমারি এলাকার বাসিন্দা ওই তরুণীর নাম সোমা সরকার (১৮)। তাঁর ঘর থেকে রক্তে লেখা একটি প্রেমপত্র উদ্ধার করেছে পুলিশ। ওই তরুণীকে নিয়ে যখন তোলপাড় চলছে তখনই ফাঁক বুঝে অভিযুক্ত যুবক ঘরে ঢুকে প্রেমপত্র সহ আরও অন্যান্য জিনিসপত্র নিয়ে পালিয়ে যায় বলেও অভিযোগ করেছে ওই ছাত্রীর পরিবার।

সোমার কাকা নিবারণ সরকার অভিযোগ করেন, প্রতিবেশী এক যুবকের সঙ্গে ভালবাসার সম্পর্ক ছিল তার ভাইঝির। কোনও কারণে সম্পর্কের অবনতি হয়। তার জেরেই তাঁর ভাইজি আত্মঘাতী হয়েছে। এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই গা ঢাকা দিয়েছে ওই তরুণ।

জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানার আইসি বিশ্বাশ্রয় সরকার বলেন, “ওই ছাত্রীর বাড়ির তরফে অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত শুরু হয়েছে। আমরা সমস্ত দিক খতিয়ে দেখছি।”

Comments are closed.