রবিবার, আগস্ট ২৫

তৃণমূল নেতার বাড়িতে বাইক বাহিনীর হামলা, মারধর, ভাঙচুর

দ্য ওয়াল ব্যুরো, কোচবিহার: তৃণমূল বিজেপির সংঘর্ষে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল তুফানগঞ্জ। ৩০-৪০ টি মোটরবাইকে করে এসে তৃণমূলের এক অঞ্চল সভাপতির বাড়িতে হামলা চালানোর অভিযোগ উঠল বিজেপির বিরুদ্ধে। তৃণমূলের  পাল্টা আক্রমণে বিজেপির ১৩ টি বাইক ভাঙচুর হয় বলে জানা গেছে। এই ঘটনায় দু দলেরই বেশ কয়েকজন জখম হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে এলাকায় পৌঁছেছে বিশাল পুলিশ বাহিনী ।

পুলিশ সূত্রে খবর, আজ সকাল ১১টা নাগাদ নাককাটিগছ গ্রামের তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি মিন্টু হোসেনের বাড়িতে হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। প্রায় ৩০-৪০টি মোটরবাইকে সওয়ার হয়ে তারা এসেছিল বলে জানা গেছে। এরা প্রত্যেকেই বিজেপির কর্মী সমর্থক বলে অভিযোগ। তাদের অতর্কিত হামলায় তৃণমূলের বেশ কয়েকজন আহত হন।

খবর পেয়ে ছুটে আসেন তৃণমূলের আরও কর্মী সমর্থক। বাইক বাহিনীকে ঘিরে ফেলে তারা। বাইকগুলিতে ভাঙচুর চালানো হয়। ঘটনাস্থলে ১৩ টি বাইক ফেলে পালিয়ে যায় বিজেপির ওই কর্মী সমর্থকরা। পুলিশ এসে কোনওমতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। দুই দলই একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে ।

তৃণমূল বিজেপির সংঘর্ষে উত্তপ্ত হল কোচবিহারের পুঁটিমারি এলাকাও। জমিতে কাজ করার সময় তৃণমূল কর্মীদের উপর অতর্কিত হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। আহত হয়েছে বেশ কয়েকজন মহিলা ও শিশুও। কোচবিহার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাঁদের।

জানা গেছে, কোচবিহার ১ নং ব্লকের পুঁটিমারি ফুলেশ্বরীর বড় নলধাবরা এলাকায় আজ সকালে জমিতে ধানের চারা বসাচ্ছিলেন গ্রামের চাষিরা। তাদের মধ্যে বেশিরভাগই তৃণমূলের কর্মী সমর্থক। অভিযোগ, আচমকাই ৪০-৫০ জন বিজেপি কর্মী তাদের উপর চড়াও হয়। বেধে যায় দু পক্ষের তুমুল সংঘর্ষ। জখম বেশ কয়েকজনকে কোচবিহার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তাদেরর মধ্যে রয়েছে মহিলা ও শিশুরাও। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

Comments are closed.