তনুশ্রী দত্ত সমকামী, আমাকে বার বার ধর্ষণ করেছে: সাংবাদিক বৈঠকে তনুশ্রীকে তুলোধনা রাখীর

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গোলাপী-কমলা জমির উপর বড় বড় সোনালী বুটি, দু’হাতে কয়েক গাছা ঝলমলে চুরি, ঘোমটা টেনে সাংবাদিকদের সামনে বসেই স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে হুঙ্কার ছুড়লেন রাখী, “আপনারা জানেন তনুশ্রী সমকামী? ১২ বছর আগে আমাকে ধর্ষণ করেছে।”

স্পষ্টবক্তা রাখী তাঁর চোখা চোখা মন্তব্যে আগেও নানা বিতর্কে জড়িয়েছেন। হামেশাই বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে তাঁর নাম থাকে। সে যে কোনও বিষয়েই হোক। #মি টু নিয়ে মুখ খোলার পরে একসময়ের সহকর্মী তনুশ্রীর বিরুদ্ধেও তোপ দেগেছেন তিনি। নানা পটেকরের পাশে দাঁড়িয়ে তনুশ্রীকে চ্যালেঞ্জ জানিযেছেন। মানহানির মামলা করার হুমকিও দিয়েছেন।

সবই হয়েছে, কিন্তু এ বার রীতিমতো কয়েক ধাপ এগিয়ে বড়সড় কামান দেগে দিয়েছেন রাখী সাওয়ান্ত। সাংবাদিক বৈঠক ডেকে বিরুদ্ধপক্ষকে তুলোধনা করাটা রাখীর রণনীতির একটা বিশেষ দিক। এ বারেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। বরং নজর টেনেছে রাখীর পরনের শাড়ি ও ভারী গয়না। তাঁর মন্তব্যকে ছাপিয়েও প্রকট হয়েছে সাবেকি পোশাকে আপাদমস্তক ঢাকা রাখীর ভাবমূর্তি। সেটা আঁচ করেই নায়িকা বলেছেন, “জানেন শাড়ি কেন পরেছি? কারণ মুখের কথার থেকে মানুষ তার পোশাককে বেশি বিশ্বাস করে। শাড়ি পরে ভারতীয় নারী সেজে এলেই তাঁর কথা গ্রহণযোগ্যতা পায়। ওয়েস্টার্ন আউটফিটে সাজলে লোকে বলত, আরে! এ তো এমনই।”

কর্মক্ষেত্রে তনুশ্রী দত্তের সঙ্গে রাখীর প্রতিযোগিতা কতটা ছিল সেটা জানা না গেলেও, একসময়ের সহকর্মীকে আক্রমণ করে রাখী বলেছেন, “দশ বছর আগে ও কি কোমায় ছিল, যে এখন উঠে এসেছে? যেহেতু এখন হাতে ছবি নেই, খবরে নাম নেই তাই এসেছে প্রবীণ অভিনেতাদের গায়ে কাদা ছেটাতে। আপনার স্বামী বা ভাইয়ের নামে এমন কথা বললে আপনি কী করতেন?” রাখীর দাবি, রাজ ঠাকরেকেও এর মাঝে টেনে এনে তাঁকে বদনাম করার চেষ্টা করছেন তনুশ্রী। সব কিছুই প্রচারের আলোয় থাকার প্রচেষ্টা।

“তনুশ্রী দত্ত সমকামী বিশ্বাস করছেন না তো? ১২ বছর আগে বার বার আমাকে ধর্ষণ করেছে। জায়গা বলি কোথায়? আমার কাছে প্রমাণ আছে,” সাংবাদিকের প্রশ্নের ঝটিতি জবাব দিয়ে কিছুক্ষণ চুপ থেকে ফের গর্জে উঠলেন রাখী। বললেন, “আমিও ১২ বছর ধরে চুপ ছিলাম। আর থাকব না। আদালতে পেশ করার আগে মিডিয়ার সামনেই সেই সব প্রমাণ রাখব। তারপর আপনারাই বলবেন।” তবে, প্রমাণ লোপাটের ভয়ে এই মুহূর্তে সেই সব দেখাতে রাজি হলেন না রাখী।

তিনি রাখী। তিনি বিতর্ক তৈরি করেন। ঝড় বইয়ে দিতে তাঁর জুরি নেই। সে কথাই আকারে ইঙ্গিতে বেশ স্পষ্ট করেই বুঝিয়ে দিলেন। রাখীর দাবি, ঝগড়াটা শুধু তাঁর তনুশ্রীর সঙ্গে নয়, বরং তিনি বলিউডের সেই সব লোকেদের পাশে আছেন যাঁদের গায়ে অনাবশ্যক কাদা ছেটানো হচ্ছে। গণেশ আচার্য, অলোক নাথ  অনু মালিকের প্রতিও নিজের সমর্থন জানিয়েছেন রাখী।

The Wall-এর ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন 

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More