শুক্রবার, ডিসেম্বর ৬
TheWall
TheWall

ভোট মিটতেই উত্তপ্ত ভাঙড়, আরাবুল বললেন, আমরা কিছু করিনি

দ্য ওয়াল ব্যুরো, দক্ষিণ ২৪ পরগনা : ভোট মিটতেই তেতে উঠল ভাঙড়। বৃহস্পতিবার রাত থেকে বোমা বন্দুক নিয়ে সন্ত্রাস চালানোর অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের আরাবুল বাহিনীর দিকে। বেশ কিছু বাড়িতে ভাঙচুর চালানো হয়। চলে লুঠপাটও। পাওয়ার গ্রিড লাগোয়া এলাকায় চলছে পুলিশের তল্লাশি।

এ বারের লোকসভা ভোটে যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মিমি চক্রবর্তী প্রায় তিন লক্ষের বেশি ভোটে জয়ী হয়েছেন। ভাঙড় বিধানসভা এলাকা থেকে নব্বই হাজারেরও বেশি ভোটে লিড পান মিমি। এলাকার তৃণমূল নেতা আরাবুল ইসলামই তার প্রধান কারিগর বলে স্থানীয় সূত্রে খবর। জমি রক্ষা কমিটির নেতাদের অভিযোগ, তাঁরা ভোটে সিপিএম প্রার্থী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যকে সমর্থন করেছিলেন বলেই বৃহস্পতিবার রাত থেকে জমি কমিটির সদস্যদের বাড়িতে আরাবুলের নেতৃত্বে তৃণমূল হামলা চালানো শুরু করে।

অভিযোগ, এলাকার এক সময়ের দাপুটে সিপিএম নেতা, ভগবানপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রাক্তন প্রধান শহিদুল গাইনের বাড়ি- সহ এলাকায় আরও বেশ কিছু বাড়িতে ভাঙচুর চালায় তৃণমূলের কর্মী সমর্থকরা। বোমা বন্দুক নিয়ে তাঁদের বাড়িতে হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ। এই হামলার প্রতিবাদে হাড়োয়া রোডে গাছের গুঁড়ি ফেলে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেছেন জমি কমিটির সদস্যরা।

আরাবুলের পাল্টা অভিযোগ, এ ঘটনার সঙ্গে তাঁদের কোনও যোগ নেই।  কমিটির লোকজন এলাকার তৃণমূল কর্মীদের বাড়িতে হামলা চালাচ্ছে। এলাকায় বোমা, বন্দুক নিয়ে সন্ত্রাস করছে। এর প্রতিবাদে আরাবুল ইসলামের নেতৃত্বে তৃণমূল কর্মীরাও ভাঙড়ের নতুনহাটে হাড়োয়া রোড অবরোধ করে। ঘটনার খবর পেয়ে কাশীপুর থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী এলাকায় পৌঁছোয়। শেষপর্যন্ত দু’পক্ষের সঙ্গে কথা বলে পথ অবরোধ তুলে দেয় পুলিশ। তবে ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় এখনও যথেষ্ট উত্তেজনা রয়েছে। চলছে পুলিশের টহল।

Comments are closed.