বুধবার, মার্চ ২০

বাবার অকথ্য অত্যাচারের ভিডিও দেখল আদালত, তাক লাগিয়ে দিল নাবালিকা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আদালতে দোষ প্রমাণ হওয়া জরুরী, যা বুঝেছিল বাবার কাছে রোজ অত্যাচারিত নাবালিকা মেয়েটি। তাই বুদ্ধি করে অত্যাচার চলাকালীনই লুকিয়ে বাবার তার উপর চলা বেধড়ক মারধরের ভিডিও রেকর্ড করে সে।প্রমাণ হিসেবে সেই ভিডিওই আদালতে পেশ করে নাবালিকা। বাচ্চা মেয়ের সাহসী  কীর্তিতে হতবাক পেনসিলভেনিয়ার একটি আদালত।

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, কীভাবে অভিযুক্ত বাবা ডেয়ন টেলর তার ১৩ বছরের মেয়ের উপর অত্যাচার চালাচ্ছে। শুধু তাই নয়, অত্যাচারের ঘটনা বাইরে না বলারও হুমকি দিচ্ছে টেলর। নাবালিকার মায়ের উপরও অত্যাচার চলে। যার সবটাই রেকর্ড হয় মেয়েটির মোবাইলে। আদালতে সেই ভিডিওটি নিজে থেকে পেশ করে সে। বাবার বিুরুদ্ধে প্রমাণ হিসেবে ওই ভিডিওটাই ছিল একমাত্র  সম্বল। আদালতে বাবার বিরুদ্ধে চলা মামলায় অবশেষে বড় অস্ত্র ছুড়ে দিল মেয়েটি।

সেনাবাহিনীতে সমকামী যৌন সম্পর্ক চলবে না, আমরা রক্ষণশীল, বললেন সেনাপ্রধান

ঘটনার সূত্রপাত কয়েক বছর আগের। বাবা ডেয়ন টেলরের  বদমেজাজকে ভয় পেতেন মা – মেয়ে দুজনেই। সেই সুযোগই তাদের উপর অত্যাচার বাড়িয়ে চলে টেলর।অবশেষে টেলরের বিরুদ্ধে পেনসিলভেনিয়ার আদালতে অত্যাচারের মামলা দায়ের করেন স্ত্রী। কয়েক মাস আগেই শুরু হয় বিচার প্রক্রিয়া। উপযুক্ত প্রমাণের অভাবেই টেলরকে গ্রে্ফতার করা যায়নি। আদালতে টেলরের দোষও প্রমাণ কর যায়নি।

তথনই গোটা ঘটনার ভিডিও করার সিদ্ধান্ত নেয় নাবালিকা।  ভাবা মাত্রই কাজ। ভিডিওটিতে দেখা যায়, শুধু মার নয়, যাতে আদালতে তার মেয়ে মিথ্যে কথা বলে সেই প্রশিক্ষণও দিচ্ছে টেলর।আদালতে নাবালিকাকে পাগল প্রমাণ করতে তৎপর ছিল সে। মেয়েটিকে দিয়েই  যা বলনোর চেষ্টা চালাচ্ছিল। তাছাড়া, ৫৬ বছরের টেলরের কাছে  সমানভাবে অত্যাচারিত তার স্ত্রী, তাও ফুটেজে স্পষ্ট।

মাত্র ১৩ বছর বয়সে  বাবার অত্যাচারে ভিডিও লুকিয়ে তোলার সাহস দেখিয়েছে নাবালিকা। অত্যাচারী বাবাকে জেল হেফাজতে রাখার ইচ্ছেও প্রকাশ করেছে সে। ভিডিও সামনে আসতে আদালত টেলরকে দোষী সাব্যস্ত করে। আপাতত পুলিশি হেফাজতে সে। এর আগে এই মামলাতেই আদালত টেলরের জামিন মঞ্জুর করেছিল। এবার সেই জামিনই প্রত্যাহার করা হলো।

দুর্ভাগ্য! ভালো খেলেও আরবের কাছে হেরেই মাঠ ছাড়তে হলো সুনীলদের

 

 

 

 

Shares

Comments are closed.