সোমবার, ডিসেম্বর ১৬
TheWall
TheWall

দেহ ঝুলছে প্রেমিকের, পাশে পড়ে প্রেমিকার ওড়না-ব্যাগ-সাইকেল!

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রবিবার সাত সকালে যুবকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হল বীরভূমের সিউড়িতে। এই ঘটনায় যুবকের প্রেমিকার বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ করেছে মৃতের পরিবার। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

পুলিশ সূত্রে খবর, সিউড়ির কুলেরা গ্রামের একটি মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল দত্তপুকুর পাড়ার বাসিন্দা বিশ্বজিৎ কাহারের। কিন্তু এই সম্পর্কে রাজি ছিল না বিশ্বজিতের পরিবার। তার মা নাকি তাকে অনেকবার এই সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসতে বললেও সে রাজি হয়নি।

জানা গিয়েছে, শনিবার দুপুরে বিশ্বজিতের প্রেমিকার সঙ্গে ফোনে কথা হয় বিশ্বজিতের মায়ের। এই সময় দু’জনের মধ্যে ঝগড়া হয়। মেয়েটিকে অনেক কথা শোনান বিশ্বজিতের মা। এমনকি তাঁর ছেলের জীবন থেকে সরে যাওয়ার কথাও তিনি বলেন ফোনে। সেই সময় বিশ্বজিৎ বাড়ি ছিল না। বাড়ি ফিরে সবটা জানতে পারার পর সন্ধেবেলা বেরিয়ে যায় সে। তারপর থেকে তার কোনও খোঁজ মিলছিল না। রাতেও বাড়ি ফেরেনি সে।

বিশ্বজিতের বাড়ির লোক ও প্রতিবেশীরা অনেক খোঁজ চালায়। কিন্তু খোঁজ পাওয়া যায়নি। রবিবার সকালে গ্রাম থেকে কিছুটা দূরে একটি নিমগাছে বিশ্বজিতের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। দেহের পাশেই পড়েছিল মেয়েদের একটি ব্যাগ, ওড়না, সাইকেল ও চটি। যুবকের পরিবারের অভিযোগ এইসব জিনিস বিশ্বজিতের প্রেমিকার। তাঁরা আরও অভিযোগ করেন খুন করে গাছে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে বিশ্বজিতকে। কারণ ঝুলন্ত অবস্থায় তার পা মাটিতে ছিল। তাহলে আত্মহত্যা কী ভাবে হয়।

এই ঘটনার পরেই উত্তেজিত জনতা বিশ্বজিতের প্রেমিকাকে তার বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে আসে। তাকে এক জায়গায় বন্ধ করে রাখা হয়। এমনকি তাকে মারধর করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেছে মেয়েটি। খবর পেয়ে সেখানে পৌছয় সিউড়ি থানার পুলিশ। তারা গিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। মেয়েটির অভিযোগ বিশ্বজিতের পরিবারই এই কাণ্ড ঘটিয়েছে। দুই পক্ষের অভিযোগের পর ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Comments are closed.