সোমবার, আগস্ট ১৯

টোটো চালকদের বিক্ষোভ ঘিরে উত্তপ্ত মালদা, ইটে জখম চার পুলিশ

  • 4
  •  
  •  
    4
    Shares

দ্য ওয়াল ব্যুরো, মালদা : টোটো চালকদের অবরোধ আন্দোলন তুলতে গিয়ে ইট-পাথরের আঘাতে জখম হলেন চার পুলিশ কর্মী‌। পুলিশের একটি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে বলেও অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর একটা নাগাদ পুরাতন মালদা থানার সাহাপুর এলাকার রাজ্য সড়ক অবরোধ করেন টোটো চালকরা। এই অবরোধ তোলাকে কেন্দ্র করেই রণক্ষেত্রের সৃষ্টি হয়। প্রবল বৃষ্টির সুযোগ নিয়ে আন্দোলনকারীদের একাংশ কর্তব্যরত পুলিশ কর্মীদের লক্ষ্য করে ইট-পাথর ছুড়তে থাকে বলে অভিযোগ। ভাঙচুর করা হয় পুলিশের একটি গাড়িও। অভিযোগ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে লাঠিচার্জ করে পুলিশ। কাঁদানে গ্যাসের শেলও ছোড়ে। পুলিশ অবশ্য এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

এদিকে জখম চার পুলিশকর্মীকে চিকিৎসার জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।  পুলিশের ওপর হামলা, সরকারি গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে পুরাতন মালদা থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে,  আহত চার কর্মীর মধ্যে দুইজন র‍্যাফের জওয়ান।  তাদের নাম নিরঞ্জন বর্মন (৪১) এবং চৈতন্য দাস (৩৩)। আহত দুই সিভিক ভলান্টিয়ারের নাম মোহাম্মদ মহিদুর রহমান (৩৩) এবং ফরিদা খাতুন (২৫)।

গত ৫ জুলাই থেকে মালদা শহরের গ্রামীণ এলাকার টোটো চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে জেলা পুলিশ ও প্রশাসন।  এরপর থেকে প্রায়দিনই শহরে তাঁদের গাড়ি চালানোর দাবি জানিয়ে অবরোধ, আন্দোলন চালিয়ে আসছিলেন টোটো চালকেরা। মালদা-নালাগোলা রাজ্য সড়কে  বৃহস্পতিবার দিনও একই ভাবে চলে এই আন্দোলন।

এ দিন সকাল থেকেই সাহাপুর এলাকার মালদা- নালাগোলা রাজ্য সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান টোটো চালকেরা। টোটো চালকদের সাথে তাদের পরিবারের লোকেরাও সামিল হয়েছিলেন। সকাল থেকে একটানা আন্দোলনের জেরে রাজ্য সড়ক রীতিমত স্তব্ধ হয়ে যায়।  এরপরই দুপুর বারোটা নাগাদ পুরাতন মালদা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আন্দোলনকারীদের বোঝানোর চেষ্টা করে।  এবং অবরোধ তুলে নেওয়ার অনুরোধ জানায়।  কিন্তু কোনভাবেই পুলিশের আশ্বাসে টোটো চালকেরা তাদের অবরোধ আন্দোলন থেকে সরে আসেনি। এরই মধ্যে পুলিশ ও আন্দোলনকারীদের বচসা শুরু হয়। আর তারপরই টোটো চালকদের একাংশ পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট, পাথর ছুড়তে থাকে বলে অভিযোগ। তখনই বাধ্য হয়ে পুলিশকে লাঠিচার্জ করতে হয়।

পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া জানিয়েছেন,  অটোচালকদের অবরোধ আন্দোলন তুলতে গিয়ে চারজন পুলিশ কর্মী জখম হয়েছেন। পুরো বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Comments are closed.