শুক্রবার, অক্টোবর ১৮

চলন্ত মোটরবাইকে ঝাঁপ চিতাবাঘের, কোনওমতে প্রাণে বাঁচলেন দুই বন্ধু

দ্য ওয়াল ব্যুরো, জলপাইগুড়ি :  শিকার লক্ষ্য করে চলন্ত মোটরবাইকে ঝাঁপ দিয়েও শেষরক্ষা হল না।  শেষ পর্যন্ত পিছু হটতে হল। তাই সপ্তমীর সন্ধ্যায় আচমকাই মৃত্যুকে খুব কাছ থেকে দেখেও বরাতজোরে প্রাণে বেঁচে গেলেন দুই বন্ধু। তবে চিতা বাঘের হামলায় গুরুতর জখম হয়েছেন দু’জনেই। চালসার মঙ্গলাবাড়ি হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে তাঁদের।

মঙ্গলবার রাতে হরিহর আত্মা রফিকুল ও আশরাফুল কাজ সেরে বাজার করে নিয়ে মোটরবাইকে করে বাড়ি ফিরছিলেন। বড়দিঘি চা বাগান পার হওয়ার সময় ঝোপের আড়ালে লুকিয়ে থাকা চিতাবাঘ ঝাঁপিয়ে পড়ে তাদের উপর। রফিকুল জানায়, চালসার বাতাবাড়ি ফার্মবাজার থেকে বাজার করে নিয়ে বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন তাঁরা। বড় দিঘি চা বাগানের কাছে আসতেই প্রচণ্ড গতিতে চিতাবাঘটি তাদের বাইকের উপর ঝাঁপ দেয়। মোটরবাইক থেকে ছিটকে পড়েন তাঁরা।

আশরাফুল বলেন, ‘‘আবার মাথায় ও পেটে থাবা বসায় চিতাবাঘটি। তারপর আমাকে ছেড়ে আক্রমণ করে রফিকুলকে। ভয়ে চিৎকার শুরু করে দেই আমরা। সেই চিৎকারেই ঘাবড়ে গিয়ে লাগোয়া চা বাগানে ঢুকে পড়ে চিতাবাঘটি। তাতেই কোনওমতে বেঁচে যাই।’’

প্রাণে বাঁচলেও চিতাবাঘের থাবায় জখম হয়েছেন দু’জনই।  স্থানীয় বাসিন্দারা টের পেয়ে সঙ্গে সঙ্গেই তাঁদের মঙ্গলাবাড়ি হাসপাতালে নিয়ে যায়। এখন সেখানেই চিকিৎসা চলছে তাঁদের। গরুমারার জঙ্গল লাগোয়া এই এলাকায় চিতাবাঘের আক্রমণ নতুন নয়। তবে চলন্ত মোটরবাইক লক্ষ্য করে ঝাঁপিয়ে পড়ার ঘটনা এর আগে বিশেষ দেখেননি বাসিন্দারা।

 

Comments are closed.