বুধবার, মার্চ ২০

এনআরএস চত্বরে উদ্ধার প্যাকেটবন্দি ১৬টি কুকুরছানার দেহ! অনুমান, বিষ খাইয়ে খুন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বস্তায় বন্দি ১৬টি কুকুরছানার দেহ উদ্ধার হল এনআরএস হাসপাতাল চত্বরে। অভিযোগ, বিষ খাইয়ে, খুন করে, হাসপাতালে এনে ফেলে দেওয়া হয়েছে ছানাগুলিকে।

হাসপাতাল সূত্রের খবর, রবিবার দুপুরে বড় বড় কয়েকটা কালো প্লাস্টিকের প্যাকেট পড়ে থাকতে দেখেন এক হাসপাতাল কর্মীর স্ত্রী পুতুল রায়। প্যাকেটগুলির পাশেই বসে ছিল একটি মা-কুকুর। পুতুলদেবীর সন্দেহ হওয়ায় তিনি উঁকিঝুঁকি দেন প্যাকেটগুলিতে। একটি খোলা মুখের ভিতরে কুকুরছানা দেখতে পান তিনি। কৌতূহলী হয়ে বাকি প্যাকেটের মুখগুলি খুলতেই দেখতে পান কয়েক সপ্তাহ বয়সের ১৬টি কুকুরছানা মৃত অবস্থায় বন্দি!

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন একাধিক পশু প্রেমী সংগঠনের সদস্যরা। তাঁরা জানান, হাসপাতালে মেডিক্যাল বর্জ্য ফেলার জন্য যে ধরনের কালো প্লাস্টিকের থলি ব্যাবহার করা হয়, সে রকম থলিতে ভরেই ওই ছানাগুলির দেহ ফেলা হয়েছিল। তাঁদের দাবি, প্রাথমিক ভাবে দেখে মনে হচ্ছে, বিষ খাইয়ে মেরে দেওয়া হয়েছে ছানাগুলিকে।

আরও পড়ুন- ওদের ওভাবেই পিটিয়ে মারা উচিত: মিমি

অনুমান করা হচ্ছে, হাসপাতালের ভিতরেরই কেউ এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত। প্রত্যক্ষদর্শী এক ব্যক্তি জানিয়েছেন, দুপুরের দিকে দু’টি মেয়ে ওই কালে প্লাস্টিকের বস্তা নিয়ে আসে হাসপাতালে। বস্তা দু’টি নিয়ে এসে সুপারের অফিস সংলগ্ন চত্বরে ফেলে রেখে দিয়ে যায় তারা।

ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এনআরএস চত্বরে। বস্তাগুলির  মধ্যে থেকে উদ্ধার হয়েছে প্রচুর খাবারও। মনে করা হচ্ছে, খাবারে বিষ মিশিয়েই ওই কুকুরছানাগুলিকে হত্যা করা হয়েছে। একটি কুকুরছানাকে অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। তার চিকিৎসা চলছে।

এনআরএসের সুপার সৌরভ চ্যাটার্জী বলেন, “ছানাগুলো কোথাকার জানা যায়নি। কী ভাবে তাদের মারা হল, খতিয়ে দেখা হচ্ছে। হাসপাতলের তরফে তদন্ত করে দেখা হবে গোটা বিষয়টি।”

আরও পড়ুন:

মা কুকুরের চোখ খুবলে পিটিয়ে আধমরা করে, নির্মম মার ছানাদের, সামনে এল নৃশংস ভিডিও

মা কুকুরের চোখ খুবলে পিটিয়ে আধমরা করে, নির্মম মার ছানাদের, সামনে এল নৃশংস ভিডিও

Shares

Comments are closed.