মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৫

হোয়াটস অ্যাপে শিক্ষকের খারাপ মেসেজ, ছাত্রীদের বিক্ষোভে স্কুলের পড়াশোনা শিকেয়

দ্য ওয়াল ব্যুরো, উত্তর দিনাজপুর : দীর্ঘদিন ধরে একাধিক ছাত্রীকে হোয়াটসঅ্যাপে আপত্তিকর মন্তব্য লেখা ও নানা অছিলায় গায়ে হাত দেওয়ার অভিযোগ উঠল বিদ্যালয়ের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। ঘটনার প্রতিবাদে ও দোষী শিক্ষকের শাস্তির দাবিতে পড়ুয়াদের  বিক্ষোভে সোমবার উত্তাল হয়ে উঠল রায়গঞ্জ শহরের কসবার কৈলাসচন্দ্র রাধারানি বিদ্যাপীঠ স্কুল। এই ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা সৃষ্টি হয়  স্কুল চত্বরে। শিকেয় ওঠে পঠনপাঠন। যদিও আজ বিদ্যালয়ে পাওয়া যায়নি অভিযুক্ত ওই ভূগোল শিক্ষককে। স্কুলের প্রধানশিক্ষক উৎপল দত্ত জানিয়েছেন, ছাত্রীদের অভিযোগ নিয়ে আলোচনায় বসবে স্কুলের পরিচালন কমিটি। অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কৈলাসচন্দ্র রাধারানি বিদ্যাপীঠ রায়গঞ্জ শহরের একটি নামজাদা স্কুল। সেই স্কুলেরই এক ভূগোলের শিক্ষক ছাত্রীদের হোয়াটসঅ্যাপ ও মেসেঞ্জারে আপত্তিকর পোস্ট করতেন বলে অভিযোগ। রাতে ছাত্রীদের ভিডিও কল করার অভিযোগও ওঠে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে। শুধু হোয়াটসঅ্যাপ বা মেসেঞ্জারে নয়, যে ছাত্রীরা তার কাছে প্রাইভেট টিউশন নিতে যেত, নানা অছিলায় তাদের শরীরে হাত দেওয়ারও অভিযোগ উঠেছে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে। লজ্জার খাতিরে ওই আচরণের কথা ছাত্রীরা কাউকে বলতে না পারায় তা দিনের পর দিন বেড়েই চলছিল।

সোমবার স্কুলে এসে অভিযুক্ত শিক্ষকের শাস্তি দাবিতে পোস্টার নিয়ে স্কুলে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে ছাত্রীরা। তাদের এই আন্দোলনে যোগ দেন বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্রীরাও। তুমুল উত্তেজনা ছড়ায় বিদ্যালয় চত্বরে। স্কুলের কোনও শিক্ষক এ ধরনের ঘটনা ঘটাতে পারে ভাবতেই পারছেন না বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক উৎপল দত্ত। তিনি বলেন, “ছাত্রীদের অভিযোগ পেয়েছি। স্কুল পরিচালন কমিটির সঙ্গে আলোচনায় বসে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে অভিযোগ প্রমাণিত হলে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।”

Comments are closed.