রবিবার, আগস্ট ২৫

স্কুলে টয়লেটই নেই, কন্যাশ্রীর অনুষ্ঠানে কী যাব! বয়কট চোপড়ার মেয়েদের

দ্য ওয়াল ব্যুরো, উত্তর দিনাজপুর : স্কুলে সাড়ে তিন হাজার ছাত্রী। অথচ তাঁদের জন্য টয়লেট নেই। বারবার প্রশাসনকে জানিয়েও ফল মেলেনি কোনও। তাই আজ কন্যাশ্রী দিবসের অনুষ্ঠান বয়কট করল সমস্ত ছাত্রী ও শিক্ষিকারা। চোপড়া গার্লস স্কুলের এমন প্রতিবাদে জেলা জুড়ে আলোড়ন।

টয়লেট নেই, এখানেই শেষ নয়, স্কুলের সাইকেল স্ট্যান্ডের জন্য সরকারের বরাদ্দ ১১ লক্ষ টাকাও পঞ্চায়েত প্রধান আত্মসাৎ করেছেন বলে অভিযোগ করেছেন স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা। যদিও চোপড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান কারান মার্ডি তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এমন কোনও ঘটনার কথা তাঁর জানা নেই।

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বপ্নের প্রকল্প কন্যাশ্রীর ষষ্ঠ বর্ষপূর্তি উপলক্ষে বুধবার সারা রাজ্যের প্রতিটি ব্লকে উদযাপন করা হয় কন্যাশ্রী দিবসের অনুষ্ঠান। উত্তর দিনাজপুরের চোপড়া ব্লক প্রশাসনের উদ্যোগেও এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। সেই অনুষ্ঠান বয়কট করেই প্রতিবাদ জানিয়েছেন চোপড়া গার্লস হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষিকা মল্লিকা সাহা। তাঁর স্কুলের কোনও ছাত্রী এই অনুষ্ঠানে যোগ দেয়নি। মল্লিকাদেবী বলেন, “স্কুলের প্রায় ৩৫০০ ছাত্রীর জন্য টয়লেট বানাতে লাগাতার বিভিন্ন জায়গায় দরবার করেছি। তারপরেও ছাত্রীদের টয়লেট তৈরি হয়নি।”

তাঁর অভিযোগ, “চোপড়া গার্লস হাইস্কুলের জন্য মিড ডে মিলের ঘর, পানীয় জলের ব্যবস্থা ও শৌচালয় করার কথা থাকলেও সেটা চোপড়া হাইস্কুলের নামে করা হয়েছে। ২০১৭-১৮ সালে স্কুলের সাইকেল স্ট্যান্ডের জন্য ১১ লক্ষ টাকা বরাদ্দ হয়েছিল। সেই টাকাও চোপড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান তুলে নিয়েছেন। এইসব কারণেই বুধবার চোপড়া ব্লকের কন্যাশ্রী দিবস অনুষ্ঠানে আমরা কেউ যাইনি।”

চোপড়া পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি বলেন, “বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

Comments are closed.