মঙ্গলবার, মার্চ ১৯

প্রার্থী নন, জলপাইগুড়ির দেওয়াল লিখনে বেশি গুরুত্ব দলের নতুন প্রতীককে

দ্য ওয়াল ব্যুরো,  জলপাইগুড়ি:  মঙ্গলবারই রাজ্যের ৪২টি লোকসভা আসনে দলের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে ৪২টি আসনে তাঁকে প্রার্থী ধরেই ভোট যুদ্ধে ঝাঁপালেন দলের অধিকাংশ কর্মী সমর্থক। জলপাইগুড়ির ছবিটা অন্তত তেমনই। তাই এখানকার বেশিরভাগ দেওয়াল লিখনে প্রার্থী নন, গুরুত্ব পেল দলের নতুন প্রতীক।

তৃণমূল ছাত্র পরিষদের জলপাইগুড়ি জেলা সভাপতি অভিজিৎ সিনহা বললেন, “উন্নয়নের জোয়ার চলছে রাজ্য জুড়ে। তাই শুধু জলপাইগুড়ি নয় এ বারে আমাদের লক্ষ্য ৪২ এ ৪২। আর এই ৪২ আসনেই প্রার্থী দিদি। আমরা উন্নয়ন কে হাতিয়ার করছি, আর প্রার্থী নয়, বেশি গুরুত্ব দিচ্ছি নতুন প্রতীকের প্রচারে।”

তবে নাম ঘোষণা হতেই জলপাইগুড়ি জেলার তৃণমূল প্রার্থী বিজয়চন্দ্র বর্মনের সমর্থনে আদা জল খেয়ে নেমে পড়েছেন তৃণমূলের ছাত্র যুবরা। শুরু হয়ে গেছে দেওয়াল লিখন, বুথ সভা। যুব নেতা শেখ আলমগীর আলি বলেন, “আমরা সময় নষ্ট করতে চাই না। তাই দেওয়াল লিখন শুরু করে দিয়েছি। দ্রুত এই কাজ শেষ করে আজ বিকেল থেকেই বুথ সভা ও বাড়ি বাড়ি প্রচার শুরু করে দেব।”

গতকাল বিকেলে রাজগঞ্জ ব্লকের বিভিন্ন জায়গাতে দেখা গেল দেওয়াল লেখন শুরু হয়ে গেছে। রঙ তুলি হাতে তুলে নিয়ে নেমে পড়েছেন রাজগঞ্জ ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি লক্ষমোহন রায়ও। দেওয়ালে দেওয়ালে আঁকা হচ্ছে দলের প্রতীক। এ দিন বিকেলেই এলাকার কর্মীদের নিয়ে সভা করে একপ্রস্থ জরুরি আলোচনা সেরে নেন তিনি। এরপরেই সেই সভাতে এলাকার বেশ কিছু বিজেপি ও কংগ্রেস কর্মী দল ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন বলে দাবি। তাঁদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন লক্ষমোহন রায় ও মোশারফ হোসেন।

Shares

Comments are closed.