সেরা পুজো মানেই ডিজিটাল পুরস্কার, ‘শারদীয়া ডিজিটাল ইমপ্যাক্ট অ্যাওয়ার্ড’ নিয়ে তৈরি IIMC

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

    দ্য ওয়াল ব্যুরো:  গোটা বাংলা জুড়েই এখন ডিজিটাল, ডিজিটাল রব। আর হবে নাই বা কেন, আইটি সেক্টরের ল্যাপটপ-আইফোনের স্টাইল স্টেটমেন্ট থেকে ঘরের গৃহবধূ— টেক স্যাভি কথাটা এখন আর নতুন কিছু নয়। ফেসবুক-টুইটারের যুগে মা-ঠাকুমারাও এখন বোতাম টেপা মোবাইলের পুরনো মডেল দেখলে নাক সিঁটকান। পাশের বাড়ির কাকিমা তো বলেই ফেললেন, ‘‘আমার ছেলে চাকরি পেয়ে অ্যান্ড্রয়েড কিনে দিয়েছে। ওই পুরনো ফোন নিয়ে আর চলে নাকি বলুন দিকি!’’ তা কথাটা একপ্রকার সত্যিই। পয়লা বৈশাখ থেকে জামাই ষষ্ঠী সবই এখন ভার্চুয়াল। তা হলে পুজোটাই বা বাদ যায় কেন!

    ডিজিটালের যুগ। তাই মা দুর্গাকে ধরাধামে স্বাগত থুড়ি ডিজিটাল স্বাগত জানাতে আগেভাগেই তৈরি হয়ে রয়েছে ইন্টারন্যাশন্যাল ইনস্টিটিউট অব মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশন (International Institute of Media and Communication (IIMC)। শারদ সম্মানের সেরার শিরোপাটা পুজো কমিটির হাতে তুলে দিতে সোশ্যাল মিডিয়াকেই বেছে নিয়েছে আইআইএমসি।

    সেরা প্যান্ডেল থেকে সুন্দর মুখের প্রতিমা, প্যান্ডেলের নিখুঁত কারুকাজ থেকে আলোর রোশনাই— সব কিছুই জহুরির চোখ দিয়ে খুঁটিয়ে দেখেই সেরা পুজো কমিটিকে বেছে নেওয়া হবে। এই কাজে আইআইএমসি-কে সাহায্য করবে বিভিন্ন ডিজিটাল মিডিয়া। সেরার হাতে তুলে দেওয়া হবে আইআইএমসি আয়োজিত ‘শারদীয়া ডিজিটাল ইমপ্যাক্ট অ্যাওয়ার্ডস’। সেরা পুজো কমিটিকে বেছে নেওয়া হবে তিনটি বিভাগে— ১) বেস্ট ডিজিটাল ইমপ্যাক্ট অ্যাওয়ার্ড, ২) বিচারকের চোখে সেরা সম্মান, এবং ৩) দর্শকের বিচারে সেরা পুজোর অ্যাওয়ার্ড।  আগামী ১৩ অক্টোবর শ্রেষ্ঠ পুজো কমিটিগুলির হাতে এই পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে।

    দিন কয়েক আগেই আর্বানায় একটি সাংবাদিক বৈঠক করে এই পুরস্কারের কথা ঘোষণা করে আইআইএমসি। সেখানে নিমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল একঝাঁক তারকাকে। ছিলেন, টলি নায়িকা কণীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়, প্রযোজক এবং পরিচালক অরিন্দম শীল, সুচন্দ্রা ভানিয়া, ডিজে আকাশ, বিএনআরআই-এর ভাইস প্রেসিডেন্ট ও সিইও দেবযানী মুখোপাধ্যায়। তা ছাড়াও আইআইএমসি-র তরফে ছিলেন বিকাশ সিংহ এবং পারমিতা ঘোষ। শুধু দেশের মানুষ নন, দুর্গাপুজোর ফ্লেভার বিদেশের মাটিতে ছড়িয়ে দিতেও এ বছর উদ্যোগ নিয়েছে আইআইএমসি। লন্ডনে বসেই শারদীয়া ডিজিটাল মিডিয়া অ্যাওয়ার্ডের অনুষ্ঠান দেখতে পাবে বাঙালি। সৌজন্যে আইওএন টিভি। 

    বাঙালি এখন পুরোদস্তুর ডিজিটাল প্রেমী। পুজোর শপিং থেকে রেস্তোরাঁ বুকিং— সবটাই চলে ডিজিটাল মিডিয়াতেই। আগে মা, বাবার হাত ধরে পুজোর বাজারের একটা আলাদা বৈশিষ্ট্য ছিল। এখন ফোন হাতে নিয়েই তুরন্ত অর্ডার চলে যায় যে কোনও নামী ই-কমার্স ওয়েবসাইটে। নিয়মিত খবর পড়ার অভ্যাসও তৈরি হয়েছে ডিজিটাল মিডিয়াতেই। তাই ডিজিটাল নিউজ পোর্টালেরও রমরমা বাজার। গুরুগম্ভীর রাজনীতি থেকে বিনোদন গসিপ, লাইফস্টাইলের হালহকিকত থেকে চর্বচোষ্য সুখাদ্যের রেস্তোরাঁর হদিশ, সবই মিলবে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মেই।

    পুজো পরিক্রমাও মানুষজন এখন দেখতে পছন্দ করেন ভার্চুয়াল মিডিয়াতেই। তাই পুজোর পুরস্কারটাও যদি ভার্চুয়াল মিডিয়াতেই হয় তাহলে একটা আলাদা ফ্লেভারই যোগ হয়। আইআইএমসি তাই এই চমকটাই দিতে চেয়েছে। পুজোর আনন্দও হবে আবার বেশ জোরদার একটা টক্করও হবে। সোশ্যাল মিডিয়ার চোখে সেরা কে? চলবে তারই ঝাড়াই বাছাই।

    তাহলে আর দেরি কেন? পুজো প্রস্তুতি তো শুরু হয়েই গিয়েছে। এ বার কোমর কষে তৈরি হলেই হল। নতুন চমক মানেই হাতে হাতে ডিজিটাল পুরস্কার। সোশ্যাল মিডিয়ায় ফলাও করে নাম, ছবি। পুজো কমিটির কর্তৃপক্ষেরা, আপনারা তৈরি তো?

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More