মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২২

‘আমাকে অপমান করত’, শিক্ষিকার নাম হাতে লিখে রেখে আত্মঘাতী সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অন্য দিনের মতোই তিস হাজারি কোর্টে প্র্যাকটিস করতে গেছিলেন মা। বাড়িতে তখন ১২ বছরের মেয়ে একা। সে মাকে বলেছিল স্কুল যাবে না। বিকেল চারটের সময় যখন মা ফিরলেন, দেখলেন মেয়ে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে দড়ি বেঁধে ঝুলছে। দেহে প্রাণ নেই। হাতের তালুতে লিখে রেখেছে তার স্কুলের এক শিক্ষিকার নাম। যিনি ছোট্ট মেয়েটিকে রোজ সহপাঠীদের সামনে নানা ভাবে অপমান করতেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীর এই ভাবে আত্মঘাতী হওয়ার ঘটনায় স্তম্ভিত পশ্চিম দিল্লির ইন্দ্রপুরীর বাসিন্দারা। কিশোরীর মা সংবাদসংস্থা এএনআই-কে বলেছেন, তাঁর মেয়ে রোজই বলত স্কুলে ভালো লাগছে না। তাঁর মেয়েকে চরিত্রহীন বলে সহপাঠীদের সামনে নাকি তিরস্কার করেছিলেন এক শিক্ষিকা। অভিযোগ, প্রায় প্রতিদিনই তিনি কোনও না কোনও ভাবে তাঁর মেয়েকে তিরস্কার ও অপমান করতেন বলে মেয়েটির আইনজীবী মা অভিযোগ করেছেন।

আত্মঘাতী কিশোরীটি হাতের তালুতে লিখেছে, মা আমি তোমাকে ভালোবাসি। অন্য হাতের তালুতে লিখেছে ‘আমি প্রভু কৃষ্ণের কাছে চলে যাচ্ছি’।

পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে। স্কুল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে  তারা পুলিশের তদন্তে সবরকম সহযোগিতা করবে। আলাদা করে তদন্তও করছে সংশ্লিষ্ট স্কুল। তদন্তের স্বার্থে স্কুলের নাম প্রকাশ করেনি পুলিশ।

Shares

Comments are closed.