সোমবার, আগস্ট ২০

পরিবহণ মন্ত্রীর নাম করে পাঁচ লক্ষ টাকা তোলা চেয়ে ধৃত ইভেন্ট ম্যানেজার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পরিবহণ মন্ত্রীর নাম করে এক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে পাঁচ লক্ষ টাকা চেয়ে গ্রেফতার হলেন ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট সংস্থার এক যুবক।
ঘটনার সূত্রপাত গত ৬ অগস্ট। ওই দিন চুঁচুড়ায় হুগলি মোটরস-এর মালিক শেখ নাসিরুদ্দিনের কাছে একটি ফোন আসে। তাতে বলা হয় পরিবহণ দফতর থেকে বলছি, মন্ত্রী কথা বলবেন। মন্ত্রীর নাম করে ফোনে বলা হয়, চন্দননগরে একটি আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল হচ্ছে। তার জন্য কিছু দিতে হবে। পরদিন কাজল ভৌমিক নামে এক ব্যাক্তি হুগলি মোটরস্  এর অফিসে আসেন। নিজেকে পরিবহণ দফতরের অফিসার পরিচয় দিয়ে পাঁচ লক্ষ টাকা চান। ‘এত টাকা দিতে পারব না’ বলায় হুগলি মোটরস্ এর মালিককে ‘ব্যবসা করতে পারবেন না’ বলে ভয় দেখানো হয় বলে অভিযোগ।

শেখ নাসিরুদ্দিন তখন বলেন, পরে আসুন চেক দিয়ে দেব। কাজল ভৌমিক নামে ওই যুবক একটি এগ্রিমেন্টে সই করিয়ে নিয়ে চলে যায়। এরপর নাসির স্থানীয় বিধায়কের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। মন্ত্রীর নাম করে যে ফোন করা হয়েছিল তা ভয়েস রেকর্ড করা ছিল, সেটা বিধায়ককে শোনান। বিধায়ক তাঁকে পুলিশে অভিযোগের পরামর্শ দেন।

এর পর বৃহস্পতিবার সন্ধায় তমাল ব্যানার্জি নামে এক যুবক টাকা নিতে এলে তাকে আটকে পুলিশে খবর দেন শেখ নাসিরুদ্দিন। শুক্রবার চুঁচুড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। পুলিশ তমাল ব্যানার্জিকে গ্রেফতার করে। মন্ত্রীর নাম করে ফোনের কথা স্বীকার করে নেন ওই যুবক। তাঁর দাবি, এসেনশিয়াল ম্যানেজমেন্ট নামে একটি ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট সংস্থা চালান তারা দশ-বারো জন। চন্দননগর ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল-এর ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের দায়িত্ব তারা নিয়েছেন। মাস ছয়েক আগে কিক বক্সিং-এর একটি ইভেন্ট তারা করেছিলেন। তখনও হুগলি মোটরস্ থেকে এক লাখ টাকা নিয়েছিলেন তাঁরা। তখন দমকল সচিবের নাম করে ফোন করা হয়েছিল। কিন্তু এ বারে মন্ত্রীর নাম করেই তাঁরা ফেঁসে গেলেন।

গোটা ঘটনাটা জানেন পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। তিনি বলেন, “আমি সব শুনেছি। আমিই এফআইআর করতে বলেছি।”

Shares

Leave A Reply