মঙ্গলবার, জুন ২৫

জবাবদিহি চান ‘ঝুটা পার্টির’কাছে, গঙ্গারামপুরে প্রচারে গিয়ে বললেন রাজীব

দ্য ওয়াল ব্যুরো, দক্ষিণ দিনাজপুর:  দলের প্রার্থী অর্পিতা ঘোষের হয়ে প্রচারে এসে ভারতীয় জনতা পার্টিকে ঝুটা পার্টি বলে কটাক্ষ করলেন রাজ্যের অনগ্রসর শ্রেণি উন্নয়ন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। বললেন, ‘‘নোটবন্দি করে কালো টাকা বিদেশ থেকে ফেরত এনে দেশের গরিব মানুষের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ১৫ লক্ষ টাকা করে তুলে দেবেন বলেছিলেন ওরা। কিন্তু ১৫ পয়সাও মেলেনি। আচ্ছে দিনের স্বপ্ন দেখিয়ে বলেছিল একশো দিনের মধ্যে সুদিন ফিরিয়ে নিয়ে আসব। সুদিন আসেনি।  ওই ঝুটা পার্টির লোকেরা ফ্ল্যাগ হাতে নিয়ে ভোট চাইতে এলে তাদের অন্য কিচ্ছু বলতে হবে না। শুধু ওদের ব্যাঙ্ক পাশবইয়ের নথি দেখাতে বলুন। জানতে চান তারা ১৫ লক্ষ টাকা পেয়েছেন কি না। না পেলে তাদের ফ্ল্যাগ ফেলে দিতে বলুন।’’
বুধবার দক্ষিণ দিনাজপুরের গঙ্গারামপুরের বাসুরিয়া এলাকায় দলের প্রার্থী অর্পিতা ঘোষের সমর্থনে প্রচারে এসে নোটবন্দি ইস্যুতে মোদি সরকারের তীব্র সমালোচনা করেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। এ দিন বিকেলে জেলা সফরে এলে রাজীববাবুকে নিয়ে তৃণমূলের তরফে বাসুরিয়া এলাকায় পথসভার আয়োজন করা হয়েছিল। কিন্তু ওই পথসভা মুহূর্তের মধ্যে জনসভায় পরিণত হয়। সভায় রাজীব অভিযোগ বলেন, ‘‘ওরা নাম বলে ভারতীয় জনতা পার্টি। আমার তো মনে হয় ভারতের সব থেকে ঝুটা পার্টি। ভারতীয় জঘন্য পার্টি হচ্ছে এই ভারতীয় জনতা পার্টি। এরা সকালে কী বলে, আবার নিজেরাও ঠিক জানে না রাতে কী বলছে। তাই ওই ঝুটাপার্টির লোকেরা এলে প্রশ্ন করুন, ভাই একজনকে দেখিয়ে দাও গত পাঁচবছরে কেন্দ্রীয় সরকারের একটা চাকরি পেয়েছে। দেখিয়ে দিতে পারো, তবে ভারতীয় ঝুটা পার্টির ঝান্ডা ধরো। নাহলে ঝান্ডা ফেলে দাও।
রাজ্য মন্ত্রিসভার ওই সদস্যের বক্তব্য প্রসঙ্গে বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক বাপি সরকার পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, ‘‘ঝুটা পার্টির সরকারের টাকায় রাজীববাবুরা দফতর চালাচ্ছেন। কেন্দ্রীয় সরকারের প্রকল্পগুলি রাজ্যে তারা নিজেদের নামে প্রচারের চেষ্টা করছেন। মানুষ রাজীববাবুদের কায়দা ধরে ফেলেছেন।’’

এ দিন বাসুরিয়া এলাকা ছাড়াও রাতে গঙ্গারামপুরের ফুলবাড়ি এবং বালুরঘাটের মণিপুরে পথসভা করেন মন্ত্রী রাজীববাবু। প্রতিটি পথসভায় মানুষের ভিড় ছিল দেখার মত।

Comments are closed.