বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৮

বোমাবাজিতে সন্ত্রস্ত দুবরাজপুরের গ্রাম, কাটমানি বিক্ষোভের জের, বলছেন বাসিন্দারা

দ্য ওয়াল ব্যুরো, বীরভূম: কাটমানি বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে বুধবার ভোর থেকে রণক্ষেত্রের চেহারা নিল বীরভূমের দুবরাজপুর ব্লকের সদাইপুরের সাহাপুর গ্রাম। মুড়িমুড়কির মতো বোমা পড়তে শুরু করে। বোমার ধোঁয়ায় ঢেকে যায় গোটা এলাকা। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে পুলিশকে লক্ষ্য করেও চলতে থাকে বোমাবাজি। পরে বিশাল বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়।

পুলিশসূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার বিকেলে গ্রামবাসীরা ওই এলাকার তৃণমূল নেতা শেখ এনামুলের বাড়ি ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখান। একশো দিনের কাজ, ঘর তৈরি সহ একাধিক প্রকল্পে ওই নেতা কাটমানি নিয়েছেন বলে গ্রামের মানুষের অভিযোগ। কাল বিকেলে পুলিশ গিয়ে ওই নেতাকে ঘেরাওমুক্ত করেন। তখনকার মতো অশান্তি নিয়ন্ত্রণে এলেও বুধবার সকাল থেকেই রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় সাহাপুর গ্রাম।

গ্রামবাসীদের অভিযোগ, আর কেউ যাতে ভয়ে ওই তৃণমূল নেতার বাড়ি ঘেরাও করতে না পারে তার জন্য সকাল থেকেই গ্রামজুড়ে শুরু হয় বোমাবাজি। শেখা এনামুল ও তার লোকজনই এলোপাথারি বোমা মারতে শুরু করে বলে জানিয়েছেন তাঁরা। সকালে প্রত্যেকে নিজের নিজের কাজে বাড়ির বাইরে বের হন। তখনই গ্রামজুড়ে আতঙ্কের আবহ তৈরি হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছালে পুলিশকে লক্ষ্য করে শুরু হয় বোমাবাজি।

পরে সিউড়ির পুলিশ লাইন থেকে বিশাল বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। স্থানীয় বাসিন্দাদের জানান, এলাকায় প্রথম পুলিশ ঢুকতে গেলে পুলিশকে লক্ষ্য করে বোমা মারে দুষ্কৃতীরা। পরে বিশাল পুলিশ বাহিনী পুরো এলাকা ঘিরে ফেলে। ঘরে ঘরে ঢুকে চলে তল্লাশি। বেশ কিছুক্ষণ পরে বন্ধ হয় বোমাবাজি। নিয়ন্ত্রণে আসে পরিস্থিতি।

বীরভূম জেলার বিভিন্ন এলাকায় মতো সাহাপুর গ্রামও কাটমানি ইস্যুতে ও গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কারণে বার বার সংবাদ শিরোনামে এসেছে। কিছুদিন আগেই সাহাপুর এলাকার তৃণমূলের প্রধানকে বাড়িতে ঢুকে মারধরের অভিযোগ ওঠে তৃণমূলে অন্য গোষ্ঠী বিরুদ্ধে। প্রকাশ্যে মুখ না খুললেও সেই দ্বন্দ্বের কথা কার্যত স্বীকার করে নেয় তৃণমূলের​ শীর্ষ নেতৃত্ব।

এ দিন যার বিরুদ্ধে বোমাবাজির অভিযোগ সেই নেতা শেখ এনামুল বলেন, গ্রামে বোমাবাজির ঘটনায় আমার নামে মিথ্যে অভিযোগ করা হচ্ছে। এলাকার বিজেপি ও সিপিএমই এ সব করাচ্ছে। গ্রামের মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছে।

তবে বিজেপি ও সিপিএম নেতৃত্ব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। হাঙ্গামা পাকানোর দায়ে শেখ এনামুলের দুই ছেলে-সহ মোট ছ’জনকে পুলিশ এ দিন আটক করেছে।

Comments are closed.