বুধবার, জুলাই ১৭

দোকানের সামনে গাড়ি দাঁড় করানো নিয়ে এগরায় ধুন্ধুমার

দ্য ওয়াল ব্যুরো, পূর্ব মেদিনীপুর : দোকানের সামনে প্রাইভেট কার দাঁড় করানো নিয়ে অশান্তি। তারই জেরে মারধর,পথ অবরোধ, এমন কী পুলিশ-জনতা খণ্ডযুদ্ধ। সব মিলিয়ে উত্তাল হল এগরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে এলাকায় পৌঁছোয় বিশাল পুলিশ বাহিনী।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, আজ সকালে এগরা মহকুমা হাসপাতালের সামনের রাস্তায় একটি দোকানের সামনে একটি গাড়ি এসে দাঁড়ায়। দোকানি গাড়িটা সেখান থেকে সরাতে বললে গাড়িতে থাকা তিনজনের সঙ্গে শুরু হয় তাঁর বচসা। বচসা চলাকালীন ওই গাড়ির ড্রাইভার একটি লোহার রড দিয়ে ব্যবসায়ীর মাথায় আঘাত করে বলে অভিযোগ। মাথা ফেটে রক্ত ঝরতে থাকে তাঁর। বিষয়টি দেখতে পেয়ে ছুটে আসেন পাশের অন্য ব্যবসায়ীরা। তখন গাড়ির তিন আরোহী ছুটে পালিয়ে রাস্তার ধারের একটি প্যাথোলজিক্যাল ল্যাবরেটরিতে ঢুকে পড়ে। ব্যবসায়ীরাও পিছু ধাওয়া করে সেখানে যান।

উত্তেজিত জনতা ওই ল্যাবরেটরির দরজা ভেঙে তাদের বার করতে উদ্যত হলে খবর পেয়ে পৌঁছোয় পুলিশ। গাড়ির চালক-সহ তিনজনকে তাদের হাতে তুলে দেওয়ার দাবিতে সরব হয় ব্যবসায়ীরা। বেগতিক বুঝে ঘটনাস্থলে আরও বাহিনী ও কমব্যাট ফোর্স নিয়ে আসা হয়। তিনজনকে  ছিনিয়ে নিতে পুলিশের সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধ শুরু হয় ব্যবসায়ীদের। তারই মধ্যে কোনও রকমে অভিযুক্তদের ভ্যানে তোলে পুলিশ। এরপরেই ভ্যান আটকে শুরু হয় পথ অবরোধ।

অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে এগরা-দিঘা রাজ্য সড়ক। পরে বুঝিয়ে পুলিশ অবরোধ তুললেও এগরা থানার সামনে জমায়েত হয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন বাসিন্দারা। জানা গেছে, যে ব্যবসায়ীর মাথায় লোহার রড দিয়ে আঘাত করা হয়েছিল তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক। পুলিশ কর্তারা  জানান, অভিযুক্তদের কোনওরকমে থানায় নিয়ে আসতে পেরেছেন তাঁরা। পথ অবরোধ উঠলেও থানার সামনে বিক্ষোভ জারি।

Comments are closed.