বুধবার, মার্চ ২০

Breaking: বঙ্গ বিজেপি-র রথযাত্রা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায় আগামী ১৫ জানুয়ারি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বঙ্গ বিজেপি-র রথযাত্রা নিয়ে মঙ্গলবারের শুনানি শেষে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিল, আগামী মঙ্গলবার অর্থাৎ ১৫ জানুয়ারি চূড়ান্ত শুনানির পর রায় জানাবে শীর্ষ আদালত।

এ দিন বিজেপি-র তরফে আদালতে বলা হয়, তাঁরা কর্মসূচি ছোট করে করতে রাজি। অনেকটা সময় এমনিই মামলামোকদ্দমায় কেটে গিয়েছে। তাই ৪০ দিন ধরে রথযাত্রা করার যে পরিকল্পনা করা হয়েছিল, তা কমিয়ে ২০ দিনে করার কথা বলেন বিজেপি-র আইনজীবী। সেই সঙ্গে তিনি এ-ও বলেন, আগে ঠিক ভাবা হয়েছিল ৩টি যাত্রা বের করা হবে। এখন দিন কমিয়ে চারটি রথযাত্রা করার কথা বলেন তিনি।

রাজ্যের তরফে মামলা লড়ছিলেন অভিষেক মনুসিংভি। তিনি আদালতে বলেন, গোয়েন্দা রিপোর্টের কারণেই এত দূর জল গড়িয়েছে। তাই আদালতকে তিনি অনুরোধ করেন সেই রিপোর্ট পড়ে দেখতে। বিজেপি-র তরফে পাল্টা বলা হয়, “ওই রিপোর্ট বোগাস।” বিজেপি-র আইনজীবী দাবি করেন, রাজ্য সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই ওই রিপোর্ট দিয়েছে। বাংলার সরকারের উদ্দেশ্য বিজেপি-কে রথযাত্রা করতে না দেওয়া। সব শুনে আদালত বলে, আগামী মঙ্গলবার চূড়ান্ত শুনানির পর এই মামলার রায় ঘোষণা হবে।

৭ ডিসেম্বর থেকে রথযাত্রা শুরুর কথা ছিল বিজেপি-র। অক্টোবরের শেষে রাজ্যের কাছে অনুমতি চেয়ে চিঠিও দিয়েছিল গেরুয়াবাহিনী। কিন্তু নভেম্বরের শেষেও অনুমতি না মেলায়, কলকাতা হাইকোর্টে বিচারপতি তপোব্রত চক্রবর্তীর সিঙ্গল বেঞ্চে মামলা করে বিজেপি। সেই বেঞ্চ রথযাত্রা স্থগিত করে দেয়। চ্যালেঞ্জ করে ডিভিশন বেঞ্চে যায় বিজেপি। ডিভিশন বেঞ্চ রাজ্যকে নির্দেশ দেয়, বিজেপি-র প্রতিনিধিদের সঙ্গে বসে রথের পথ ঠিক করতে। এরপর দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়, কৈলাস বিজয়বর্গীয়দের সঙ্গে লালবাজারে বৈঠক করে রাজ্য। কিন্তু তারপর বিজেপি-র রাজ্য দফতর ৬ নম্বর মুরলীধর সেন লেনে ফ্যাক্স করে জানিয়ে দেয় নিরাপত্তা এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির কারণে রথযাত্রার অনুমতি দেওয়া যাবে না। এরপর ফের সিঙ্গল বেঞ্চে যায় বিজেপি। সিঙ্গল বেঞ্চ অনুমতি দেয় রথযাত্রার। পাল্টা গোয়েন্দা রিপোর্টকে হাতিয়ার করে ডিভিশন বেঞ্চে যায় রাজ্য। দু’দুবার করে হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চ এবং ডিভিশন বেঞ্চে রথ মামলা ঘুরে আপাতত সুপ্রিম কোর্টে। এখন দেখার আগামী মঙ্গলবার কী রায় দেয় দেশের শীর্ষ আদালত।

Shares

Comments are closed.