শুক্রবার, অক্টোবর ১৮

চা শ্রমিকদের বোনাসের দাবিতে বনধে অচল গোটা পাহাড়

দ্য ওয়াল ব্যুরো, দার্জিলিং : ২০ শতাংশ বোনাসের দাবিতে চা শ্রমিকদের ডাকা চা বাগান বনধে শুক্রবার অচল হল গোটা পাহাড়ই। সকাল থেকে বন্ধ রয়েছে সমস্ত দোকানপাট। বন্ধ যানবাহন চলাচলও।

বাগান শ্রমিকরা ২০ শতাংশ হারে বোনাস দাবি করলেও বাগান কর্তৃপক্ষ ১২ শতাংশের বেশি দিতে নারাজ। এই নিয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর  কলকাতায় ডাকা ত্রিপাক্ষিক বৈঠক ব্যর্থ হওয়ার পরেই আজ ষষ্ঠীর দিন চা বাগান বন্ধের ডাক দেয় চা শ্রমিকদের জয়েন্ট ফোরাম। ইতিমধ্যে ২০ শতাংশ বোনাসের দাবির সমর্থনে রিলে অনশনও শুরু হয়েছে পাহাড়ে। তাতে যোগ দিয়েছেন বিনয় তামাংও।

বোনাসের দাবিতে শ্রমিক আন্দোলনের জেরে গত কয়েক দিন ধরেই চা বাগানগুলিতে উৎপাদন ব্যহত হচ্ছে। আজ তা পুরোপুরি স্তব্ধ।  চা বাগানে ডাকা বনধের প্রভাব পড়ল গোটা জনজীবনেই। সকাল থেকে পাহাড়ের সমস্ত দোকানপাট বন্ধ। শুনশান বাজার এলাকা। যান চলাচল না করায় রাস্তাঘাটও ফাঁকা। পুজোর জন্য এমনিতেই বন্ধ স্কুল কলেজ। সরকারি অফিস খোলা থাকলেও হাজিরা কম।

পাহাড় তৃণমূলের নেতা এন ডি খাওয়াস বলেন, ‘‘দু’দিন আগে পর্যন্ত এটা ছিল শুধু মাত্র চা শ্রমিকদের আন্দোলন। কিন্তু এখন এটা পুরো পাহাড়ের আন্দোলন। কারণ পাহাড়ের সিংহভাগ মানুষের রুটিরুজি জড়িয়ে রয়েছে চা বাগানের সঙ্গে। বাগান শ্রমিকদের পাশেই রয়েছি আমরা।’’

তিনি জানান, আটটি শ্রমিক সংগঠনের যৌথ ফোরামের ডাকে আজ বনধ চলছে পাহাড়ে।

Comments are closed.