শুক্রবার, নভেম্বর ১৫

দিঘার উত্তাল সমুদ্রে স্ত্রীকে বাঁচাতে গিয়ে তলিয়ে গেলেন স্বামী

দ্য ওয়াল ব্যুরো, পূর্ব মেদিনীপুর : সমুদ্রে স্নান করতে নেমে তলিয়ে যাচ্ছিলেন স্ত্রী। তাঁকে বাঁচানো গেলেও সমুদ্র থেকে আর ফেরা হল না স্বামীর। মঙ্গলবার সকালে মর্মান্তিক এই ঘটনা ঘটে দিঘার ক্ষণিকা ঘাটে।

পুলিশ জানিয়েছে মৃতের নাম দীপু সেনাপতি (৪০)। সোমবার হুগলির খানাকুল থেকে বাসে করে দিঘা বেড়াতে আসেন ৪০ জনের একটি দল। সেই দলেই ছিলেন দীপু ও তাঁর স্ত্রী মিতা। নিম্নচাপের জেরে আজ সকাল থেকেই ফুঁসে উঠেছে দিঘার সমুদ্র। সেই উত্তাল রূপ অগ্রাহ্য করেই সমুদ্রে নেমে পড়েছেন বহু পর্যটক। একহাতে ধরা মোবাইল ফোন নিয়ে অনেকটা এগিয়ে গিয়েছিলেন মিতাও। আচমকাই ঘূর্ণিতে পড়ে যান। তাঁর “বাঁচাও বাঁচাও” আর্তনাদ শুনে এগিয়ে যান দীপু। ঢেউ এর সঙ্গে লড়াই করে স্ত্রীকে কোনও মতে ঠেলে পাড়ের দিকে ফেরাতে পারলেও তলিয়ে যান নিজে।

দীর্ঘক্ষণ তাঁর আর কোনও খোঁজ মেলেনি। সমুদ্রের ধারে থাকা নুলিয়ারাও ব্যর্থ হন। বেশ কিছুক্ষণ পরে জোয়ারের জলে ভেসে আসে তাঁর নিথর দেহ। দিঘা স্টেট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে মিতাকে। খানাকুলের রাজহাটিতে বাড়ি তাঁদের। খবর পাঠানো হয়েছে সেখানে।

Comments are closed.