বুধবার, জানুয়ারি ২২
TheWall
TheWall

দিঘার সমুদ্রে চোরাবালিতে কিশোর, নুলিয়াদের চেষ্টায় কোনওমতে রক্ষা

Google+ Pinterest LinkedIn Tumblr +

দ্য ওয়াল ব্যুরো, পূর্ব মেদিনীপুর : দিঘার সমুদ্রে স্নান করতে নেমে চোরাবালিতে তলিয়ে যেতে বসেছিল এক কিশোর। জীবন বাজি রেখে চার পাঁচজন নুলিয়া কোনওমতে উদ্ধার করল তাকে।

পুলিশসূত্রে জানা গেছে, পশ্চিম মেদিনীপুরের দাসপুর থেকে বাবা মায়ের সঙ্গে রবিবার দিঘায় বেড়াতে এসেছিল ১২ বছরের কিশোর অমিত দাস। আজ দুপুরে পুরনো দিঘার মেৱিনা ঘাটে স্নান করতে নেমে চোরাবালিতে তলিয়ে যেতে বসেছিল সে। প্রায় বুক পর্যন্ত চোরাবালিতে তলিয়ে গিয়েছিল তার। কাছাকাছি থাকা নুলিয়াদের নজরে পরে বিষয়টি। তারাই তড়িঘড়ি চার পাঁচটা টিউব নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েন জলে। বেশ কিছুক্ষণ যুদ্ধ চলবার পর অবশেষে ওই কিশোরকে বাঁচাতে সক্ষম হন তাঁরা।

অজ্ঞান অবস্থায় ওই কিশোরকে দিঘা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে পরে জ্ঞান আসে তার। জানা গিয়েছে কোমরে মারাত্মক আঘাত লেগেছে তার। হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে ওই কিশোরের।

প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, চোরাবালি থাকায় পুরনো দিঘার ওই ঘাটটিতে নামা বারণ। তা অগ্রাহ্য করেই সেখানে আজ স্নান করতে নেমেছিল অমিত। তবে অমিতের বাবা অজিত দাস জানান, স্নান করার জন্য কোনও প্রস্তুতিই ছিল না তাঁদের। সমুদ্রের ধারে বসে ডাব খাচ্ছিলেন তাঁরা। আচমকাই তাঁর ছেলে জলে নামে আর চোরাবালির পাকে পড়ে যায়। তিনি বলেন, “দিঘায় চোরাবালি রয়েছে, আমার জানা ছিল না। ওই নুলিয়াদের জন্য আজ আমার ছেলের জীবনরক্ষা হল। ওঁদের অনেক ধন্যবাদ। প্রশাসনকেও ধন্যবাদ জানাচ্ছি।”

Share.

Comments are closed.