শনিবার, অক্টোবর ১৯

অসম সীমানার গ্রামে স্ত্রী সন্তানকে মেরে আত্মঘাতী স্বামী

 দ্য ওয়াল ব্যুরো, আলিপুরদুয়ার : ঘর থেকে উদ্ধার হল স্বামী- স্ত্রী ও সন্তানের দেহ। স্ত্রী ও সন্তানকে খুন করে ওই ব্যক্তি আত্মঘাতী হয়েছেন বলে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান।  কুমারগ্রামের দক্ষিণ পাকরিগুড়ি গ্রামে এই ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, আজ সকাল ৯টা নাগাদ টেলিফোনে তারা জানতে পারেন, অসম বাংলা সীমান্তের দক্ষিণ পাকড়িগুড়ি গ্রামের একটি বাড়ি থেকে মিলেছে স্বামী-স্ত্রী ও তাদের সাত বছরের শিশুর দেহ। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তারা দেখেন, ঘরের কাঠের বিম থেকে ঝুলছে গৃহকর্তা বাসুদেব পালের (৩২) দেহ। মাটিতে পড়ে রয়েছে অনিমা পাল (২৫) ও অঙ্কিতা পালের (৭) দেহ। মা ও মেয়ের গলায় শক্ত করে গামছার ফাঁস আটকানো।

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পারে, দিন মজুরের কাজ করত বাসুদেব। যে টাকা আয় করতো, তার বেশিটাই ব্যয় করতো নেশা করতে। এই নিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে নিত্য অশান্তি লেগে ছিল তার। বুধবার রাতেও স্বামী স্ত্রীর ঝগড়ার আওয়াজ পেয়েছিলেন প্রতিবেশীরা। আজ সকালে তাঁদের ঘর থেকে কোনও আওয়াজ না পেয়ে সন্দেহ হয় পড়শিদের। পরে গরে ঢুকে তাদের তিনজনের মৃতদেহ দেখতে পেয়ে খবর দেন পুলিশকে। পুলিশ এসে মৃতদেহগুলি ময়নাতদন্তে পাঠায়। সাংসারিক অশান্তির জেরেই ওই ব্যক্তি তাঁর স্ত্রী ও সন্তানকে খুন করে আত্মঘাতী হয়েছেন বলে পুলিশের অনুমান।

Comments are closed.